সখীপুরের পৌর মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা হানিফ আজাদ এর আন্তর্জাতিক পদক লাভ


admin প্রকাশের সময় : অক্টোবর ১৭, ২০২৩, ৭:১৭ পূর্বাহ্ন /
সখীপুরের পৌর মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা হানিফ আজাদ এর আন্তর্জাতিক পদক লাভ

সখীপুরের পৌর মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা হানিফ আজাদ এর আন্তর্জাতিক পদক লাভ

খাঁন আহম্মেদ হৃদয় পাশা
স্টাফ রিপোর্টারঃ
টাঙ্গাইলের সখীপুর পৌরসভার মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু হানিফ আজাদ বর্জ্য ব্যবস্থাপনা ও স্যানিটেশন খাতে বিশেষ অবদান রাখার জন্য ‘এশিয়া-প্যাসেফিক স্যানিটেশন এক্সসিলেন্স পদক’ লাভ করেছে।
পদক প্রাপ্তির বিষয়ে ইন্দোনেশিয়ার জাকার্তায় অবস্থিত প্রতিষ্ঠান ‘ইউনাইটেড সিটিস্ এন্ড লোকাল গভার্ণমেন্টস এশিয়া প্যাসিফিক’-এর সেক্রেটারি জেনারেল ড. বেরনাডিয়া ইরাওয়াতি টি জান্ড্র ডেই-এর গত ৬ অক্টোবর স্বাক্ষরিত এক আমন্ত্রণপত্রে এ তথ্য জানানো হয়েছে।
প্রতিষ্ঠানটির আমন্ত্রণপত্রে আরও জানানো হয় আগামী ১৩ থেকে ১৫ নভেম্বর চীনে অনুষ্ঠিত কংগ্রেসে বিজয়ী পৌরসভা হিসেবে (এওয়ার্ড) পদক গ্রহণের জন্য সখীপুর পৌরসভার মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু হানিফ আজাদকে অনুরোধ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য যে, চীন গমণের আসা-যাওয়ার যাবতীয় খরচ ওই প্রতিষ্ঠান বহন করবে। এদিকে, আন্তর্জাতিক পদকে ভূষিত হওয়ায় সোমবার দুপুরে আন্তর্জাতিক এনজিও সংস্থা ওয়াটারএইড বাংলাদেশ-এর পক্ষে ট্যাকনিক্যাল অফিসার ইয়াসিন আরাফাত এসোসিয়েট অফিসার ফারাহ নাজনীন এবং এনজিও সংস্থা বাসা ফাউন্ডেশনের পক্ষে প্রজেক্ট ম্যানেজার শফিকুল ইসলাম মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু হানিফ আজাদকে ফুলের শুভেচ্ছা জানান।
এ সময় ইউএনও ফারজানা আলম, প্রেসক্লাব সভাপতি শাকিল আনোয়ার, পৌর নির্বাহী কর্মকর্তা কামরুল ইসলাম, প্রকৌশলী মাহবুবুর রহমানসহ পৌরসভার কাউন্সিলরগণ উপস্থিত ছিলেন।
এ প্রসঙ্গে মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু হানিফ আজাদ বলেন, সারা বাংলাদেশের মধ্যে ৩৩০টি পৌরসভা রয়েছে। এর মধ্যে সখীপুর পৌরসভা বর্জ্য ব্যবস্থাপনা ও স্যানিটেশন খাতে শ্রেষ্ঠ হয়েছে। দেশসেরা পৌরসভা হয়েছে। ইন্দোনেশিয়ার জাকার্তায় অবস্থিত ওই প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে এশিয়া মহাদেশের সিটি কর্পোরেশন ও পৌরসভার বর্জ্য ব্যবস্থাপনা ও স্যানিটেশন খাতে জরিপ কার্যক্রম চালিয়ে থাকে। দেশসেরা পদকটি তিনি পৌরবাসীকে উৎস্বর্গ করে বলেন, আগামীতে পৌরসভাকে পৌরবাসীর সার্বিক সহযোগিতা নিয়ে একটি স্মার্ট পৌরসভায় রুপান্তরিত করবেন।
তিনি উন্নয়ন কাজ অব্যাহত রয়েছে জানিয়ে আরও বলেন, ২০২২-২৩ অর্থ বছরের মধ্যে ৩৭ কোটি টাকার উন্নয়নমূলক কাজ শেষ হবে। পৌরসভায় জলাবদ্ধতার সমস্যার কথা স্বীকার করে তিনি বলেন, জলাবদ্ধতা নিরসনে ড্রেনেজ ব্যবস্থার কাজ চলমান রয়েছে। আগামী ১ বছরের মধ্যে এ সমস্যা থাকবেনা বলেও জানান।

এছাড়াও পৌরভবন নির্মাণে ভূমির জটিলতা খুব শিগগিরই কেটে যাবে এবং উন্নত মানের পৌরভবন নির্মানের কার্যক্রম অচিরেই শুরু হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

এ প্রসঙ্গে টাঙ্গাইল-৮ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা জোয়াহেরুল ইসলাম বলেন, পৌরমেয়রের নানা উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবি রাখে।

প্রধানমন্ত্রী হিসেবে জননেত্রী শেখ হাসিনা আছে বলেই সখীপুর পৌরসভায় নানামুখী উন্নয়ন করা সম্ভব হয়েছে।
এ উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতেই পঞ্চমবারের মতো শেখ হাসিনাকে প্রধানমন্ত্রী করার জন্য আবারও তাকে নৌকা প্রতীকে ভোট দেওয়ার আহবান জানান তিনি।